১৩০ বছর পর দেখা মিলল

নিউজ ডেস্কঃ

প্যাঁচা কম বেশি সকলেই দেখেছেন। আর সাদা প্যাঁচাও মাঝে মধ্যে নজরে আসে। কিন্তু এই প্যাঁচা একদমই আলাদা। সাদা বর্ণের হলেও গায়ে তার কালো ডোরাকাটা দাগ। বুসম্প্রতি এমনই প্যাঁচা একে নিয়েই মেতেছিল মার্কিন মুলুকের নেটিজেনরা। নিউইয়র্ক শহরের সেন্ট্রাল পার্কে হঠাৎই নজরে আসে এই তুষার প্যাঁচা।

গত বুধবার প্রায় ১৩০ বছর পর এই প্যাঁচাকে প্রথমবার সেন্ট্রাল পার্কে দেখতে ভিড় লেগে যায় শহরবাসীদের। সঙ্গে সঙ্গেই তার ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করা হয় সামাজিক মাধ্যমে। আমেরিকান মিউজিয়ামের পাখি বিভাগের প্রধান পল সুইট জানিয়েছেন, সেন্ট্রাল পার্কে অত্যন্ত বিরল প্রজাতির এই তুষার প্যাঁচা সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল ১৮৯০ সালে।

আর্কটিক টুন্ডার স্থানীয় পাখি হল তুষার প্যাঁচা এবং শীতকালে এরা দক্ষিণে পাড়ি দেয়। বিরল প্রজাতির এই প্যাঁচা সংখ্যায় খুবই কম। এই প্যাঁচা বেশিরভাগ সময় আইল্যান্ড বা সমুদ্র সৈকতে দেখা যায়। হঠাৎ করেই তুষার প্যাঁচার আগমনে খুশি হয়েছিলেন ওই সেন্ট্রাল পার্কের কর্তৃপক্ষরা।
তারা একটি ট্যুইটের মাধ্যমে জানিয়েছেন, প্যাঁচা খুবই শান্তিপ্রিয়। কুকুর ও অন্যান্য প্রাণী এবং ভক্তদের মধ্যে বিশেষত শহরাঞ্চলে অশান্তির ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে এই প্যাঁচাটি। দয়া করে আপনারা সাবধানতা অবলম্বন করুন, দূরত্ব বজায় রাখুন এবং তাদের উপস্থিতির গুরুত্ব দিন।

বার্ড সেন্ট্রালপার্ক ওই তুষার প্যাঁচার একটি ভিডিও পোস্ট করেছে, যেখানে তার পাশে একটি কাককে বসে থাকতে দেখা গেছে।
সেন্ট্রাল পার্কে এই তুষার প্যাঁচার ছবি ধীরে ধীরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। একজন ব্যক্তি মন্তব্য করেন, নিউইয়র্কের সেন্ট্রাল পার্কে তুষার প্যাঁচার বিরল চেহারা এমনকি এক মুহুর্তের জন্য দেখার সুযোগটি পাওয়া আমার কাছে সত্যিই দুর্দান্ত ছিল।

  •  
  •  
  •  
  •