চীন থেকে দেশে ফিরছেন ৩৬১ জন, রাখা হবে হজ ক্যাম্পে

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সম্প্রতি চীনে করোনাভাইরাস মহামারির আকার ধারণ করায় দেশটিতে অবস্থানরত ৫ হাজার বাংলাদেশিদের যারা দেশে আসতে চেয়েছেন, তাদের দেশে আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। শুক্রবার চীন থেকে দেশে আসছেন মোট ৩৬১ জন। তাদের মধ্যে ১৮ শিশু ও শিক্ষার্থীসহ মোট ১৯ পরিবারের সদস্য রয়েছেন। তাদের আনতে আজ উহানে যাচ্ছে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট।

চীন থেকে ফিরতে চাওয়া বাংলাদেশিদের আনতে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট ঢাকা থেকে উহানের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে শুক্রবার বিকেল পাঁচটার দিকে। ৪১৯ আসনের এই ফ্লাইটটি চীন থেকে বাংলাদেশিদের নিয়ে দেশে ফিরবে শুক্রবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে।

এদিকে দেশে আনার পর প্রাথমিকভাবে ১৪দিন তাদের ঢাকার আশকোনার হজ ক্যাম্পে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আজ এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেন, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে চীনের উহান থেকে শিক্ষার্থীসহ ৩৬১ জন বাংলাদেশে আসার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছে। গতরাতে চীনা কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে ক্লিয়ারেন্স দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, চীন থেকে আসা বাংলাদেশিদের পর্যবেক্ষণের জন্য আশকোনা হজ ক্যাম্পে ১৪ দিন রাখা হবে। এরই মধ্যে হজ ক্যাম্পে আইসোলেশন ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে।

চীনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, দেশটিতে বর্তমানে প্রায় পাঁচ হাজার বাংলাদেশি রয়েছেন যাদের মধ্যে প্রায় ৪৫০ রয়েছেন উহানে। চীনে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে ৩১৪ জন বাংলাদেশি দূতাবাসের কাছে দেশে ফেরার জন্য আবেদন করেছিলেন। অবশেষে আজ তাদের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •