ঈদের আগে না পরে ,গণপরিবহন বন্ধ নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি

নিউজ ডেস্কঃ

ঈদের আগে ও পরে সারাদেশে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে একবার বলা হচ্ছে ঈদের আগে ও পরে মোট ৯ দিন গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। আবার বলা হচ্ছে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ও পশুবাহী ট্রাক ব্যতীত সকল সাধারণ পন্যবাহী পরিবহন ওই ৯ দিন ফেরী পারাপার বন্ধ থাকবে। তবে ঈদে গণপরিবহন বা লঞ্চ, বাস ও ট্রেন বন্ধের কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়।

কিন্তু করোনাভাইরাসের এই মহামারিতে ঈদের সময় মানুষ দলবেধে আবার গ্রামে ও শহরে যাতায়াত করলে সংক্রমণ কোথায় গিয়ে ঠেকবে তা বলা মুশকিল। তাই ঈদের মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মেনে কর্মস্থলে থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। তবে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে কোরবানির ঈদে সব চাকরিজীবীকে কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনা ইতোমধ্যে দিয়েছে সরকার। গণপরিবহন সীমিত পরিসরে চলাচল করায় ঈদের সময় সিদ্ধান্ত কী হবে, তা জানতে সবার আগ্রহ সামধারণ মানুষের।

জানা গেছে, ঈদের আগে-পরে ৯ দিন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও কোরবানির পশু পরিবহনের যানবাহন ছাড়া পণ্য পরিবহনের অন্য সব যান বন্ধ রাখবে সরকার; এই সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচল অব্যাহত থাকবে। ঈদুল আজহা উপলক্ষে লঞ্চ, ফেরি, স্টিমার চলাচল ও যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণসহ কর্মপন্থা নির্ধারণ নিয়ে বুধবার (১৫ জুলাই) সচিবালয়ে এক বৈঠকের শুরুতে নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ঈদের আগে-পরে ৯ দিন গণপরিবহন বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •