কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা নিতে রাষ্ট্রদূতদের নির্দেশ

নিউজ ডেস্কঃ

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) পরবর্তী নতুন বিশ্বে বাংলাদেশিদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ নতুন পরিস্থিতিতে সম্ভাবনাময় কোনো খাত সৃষ্ট হলে সেটাকে কাজে লাগাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বিদেশে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতদের নির্দেশনা দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়৷ জাতীয় সংসদ ভবনে কমিটির সভাপতি লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়৷

বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে ফারুক খান বলেন, করোনা ভাইরাস পরবর্তীতে বিশ্বে নতুন পরিস্থিতি ও ভিন্ন ধরনের প্রেক্ষাপট তৈরি হবে। এই নতুন বিশ্বের সঙ্গে আমাদের তাল মিলিয়ে চলতে হবে। কোভিড পরবর্তী বিশ্বে কিভাবে বাংলাদেশিদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা যায়। পাশাপাশি নতুন যেসব সম্ভাবনাময় খাত তৈরি হবে সেগুলো কিভাবে কজে লাগানো যায় তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করতে হবে৷

এসব বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দিক-নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। এছাড়া ইতালিতে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিয়ে গণমাধ্যমে যেভাবে তথ্য এসেছে বাস্তবতা তা নয়। বিদেশ ভ্রমণে করোনা টেস্টের সার্টিফিকেট নিতে হবে বিষয়টিও সে রকম নয়। কোনো দেশে প্রবেশ করলে সে দেশের বিমানবন্দরে তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় একটা পরীক্ষা করে থাকে। সেখানে পজিটিভ এলে তাদের দেশের নিয়ম অনুযায়ী তারা ব্যবস্থা নিয়ে থাকেন। এসব বিষয়ে যাতে কোনো বিভ্রান্তি তৈরি না হয় সেজন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিং করে দেশবাসীকে সঠিক তথ্য দিতে বলা হয়েছে৷

এদিকে বৈঠকের পর সংসদ সচিবালয়ের এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

বৈঠকে কোভিড-১৯ আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি এবং এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কি কি পদক্ষেপ নিয়েছে সে বিষয়ে আলোচনা করা হয়। বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত বাংলাদেশি মিশনগুলো কি কী কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে এবং তার বাস্তবায়ন কতটুকু হয়েছে সে বিষয়ে কমিটি বৈঠকে মন্ত্রণালয়কে বিস্তারিতভাবে অবহিত করার জন্য সুপারিশ করা হয়।

কোভিড-১৯ এর আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি কি এবং প্রবাসী বাংলাদেশিরা কী অবস্থায় আছে দেশবাসীকে অবহিত করার জন্য নিয়মিত প্রেস ব্রিফিং করার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে কমিটি।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স, আব্দুল মজিদ খান, নাহিম রাজ্জাক, কাজী নাবিল আহমেদ ও নিজাম উদ্দিন জলিল জন।

  •  
  •  
  •  
  •