বাংলাদেশি পরিচয়ে সৌদিতে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা

নিউজ ডেস্কঃ

কোনো রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পরিচয়ে পাসপোর্ট নিয়ে সৌদি গিয়ে থাকলে আবেদনের ভিত্তিতে তাদের পাসপোর্ট নবায়নের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) রাজধানীর গুলশানে হোটেল ওয়েস্টিনে আয়োজিত কিং সালমান রিলিফ সেন্টার বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থী ও স্বাগতিক সম্প্রদায়ের জন্য ৩০ হাজার খাদ্য ঝুড়ি বিতরণ প্রকল্প বাস্তবায়ন অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সৌদি আরবে অবস্থানরতরা বাংলাদেশি পাসপোর্ট যদি একবার পেয়ে থাকে, আর যদি বাংলাদেশি পাসপোর্ট না পেয়ে থাকে, তারা যদি রোহিঙ্গা হয়ে থাকে তবে এগুলো বিচার বিশ্লেষণ করে চিন্তা করতে হবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যাটা আজকের না। ৫০-৬০ বছর আগেও রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে এসেছিল। সৌদি আরবও এ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। বর্তমানে সৌদির একটি শহরে রোহিঙ্গারা একটা ক্যাম্প করে থাকছে।

‘আমাদের কথা হচ্ছে তারা সবাই রোহিঙ্গা, মিয়ানমারের অধিবাসী। আমরা সব সময় বলে আসছি যারা রোহিঙ্গা তারা বাংলাদেশি নাগরিক নন। আর যদি আমরা কাউকে পাসপোর্ট দিয়ে থাকি সে পাসপোর্ট নবায়ন অবশ্যই করব। কিন্তু মিয়ানমারের অধিবাসী যারা, তারা মিয়ানমারের নাগরিক, তারা বাংলাদেশের নাগরিক নন’ যোগ করেন মন্ত্রী।

একই অনুষ্ঠানে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসুফ আল-দুহাইলান বলেছেন, বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা সৌদি আরব গেছে। সেসব পাসপোর্টের মেয়াদ না থাকায় বা হারিয়ে যাওয়ায় তাদের তালিকাও বাংলাদেশকে দিয়েছে সৌদি সরকার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে যাওয়ায় সৌদি আরব তাদের বাংলাদেশি হিসেবে বিবেচনা করছে। তাদের নতুন পাসপোর্ট কিংবা নবায়ন করা পাসপোর্ট প্রয়োজন। এর মধ্যেই সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি করে বিষয়টি দেখছে।

  •  
  •  
  •  
  •