৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছে দিনাজপুরে তাপমাত্রা

নিউজ ডেস্কঃ

মৌসুমের তৃতীয় দফা শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে; দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমেছে ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে- সীতাকুণ্ড, শ্রীমঙ্গল, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ ও চুয়াডঙ্গা অঞ্চলসহ রংপুর বিভাগের ওপর দিয়ে বয়ে চলা এই মৃদু শৈত্যপ্রবাহ ফেব্রুয়ারির শুরু পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

বড় এলাকা জুড়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চলে এলে মৃদু; ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে মাঝারি এবং ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বলে ধরা হয়।

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি ও মধ্য জানুয়ারির মৃদু শৈত্যপ্রবাহের পর এখন তৃতীয় দফা শৈত্যপ্রবাহ বইছে উত্তর পশ্চিম জনপদে।

বৃহস্পতিবার রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৯-১১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। আর ঢাকায় সর্বনিম্ন ১৩ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে এদিন।

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, ২৮ জানুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এমন আবহাওয়া বিরাজ করতে পারে। মাঘের মাঝামাঝি হিমেল হাওয়ার সঙ্গে আগামী কয়েকদিন মেঘলা আবহাওয়া ও কুয়াশায় শীতের অনুভূতি কিছুটা বাড়বে।

শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সারাদেশে আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকবে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত ঘন কুয়াশা বিরাজ করবে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

গত ১৮-২৩ ডিসেম্বর এবং ২৬-৩১ ডিসেম্বর রংপুর, রাজশাহী, কুষ্টিয়া ও যশোর অঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যায়।

১৫ জানুয়ারি বদলগাছিতে থার্মোমিটারের পারদ নেমে যায় ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, যা চলতি মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

বাংলাদেশে শীতের দাপট মূলত চলে জানুয়ারি মাসজুড়ে। পাতা ঝরার দিনও চলছে প্রকৃতিতে। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি বিদায় নেবে শীত।

  •  
  •  
  •  
  •