তানোরে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা

তানোর সংবাদদাতা:
পঁচিশ বছর পর তানোরে আবার গ্রাম বাংলার হারিয়ে যাওয়া ঐহিত্যবাহী ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হলো। বরেন্দ্র অঞ্চলের গেরুয়া প্রান্তরে ধুলিমাখা মাঠে টকবকিয়ে ছুটছিল ঘোড়া চালক, আর হাজার হাজার দর্শকের করতালিতে যেন পুরো মাঠ হয়ে উঠে আনন্দ উৎসবের মিলন মেলা।

রাজশাহীর তানোর উপজেলার মালশিরা গ্রামে গতকাল রবিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। নওগাঁ, বগুড়া, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ৫৫টি ঘোড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতা শেষে প্রথম স্থান অধিকারীকে ২১ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন, দ্বিতীয় স্থান অধিকারীকে ১৪ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে মোবাইল ফোন দেয়া হয়।

দীর্ঘদিনের বন্ধ হওয়া বাংলার ঐতিহ্যবাহী ঘোড় দৌড় প্রতিযোগিতাটি আবার তানোরের প্রান্তিক মানুষের কাছে নতুন আমেজ ও বিনোদন মেলা হিসেবে তুলে ধরেছেন কামারগাঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোসলেম আলী।

তিন পর্বের এই প্রতিযোগিতায় প্রথম বিজয়ী সিরাজগঞ্জের সিদ্দিকের ছেলে ‘সোনারতরী’ঘোড়া সোয়ারী দিপু। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ‘টাইগার’ঘোড়ার সোয়ারী তসলিমা আক্তার ও তৃতীয় হয়েছেন নওগাঁ জেলার পত্নীতলা গ্রামের ‘বিজলী রাণী’ঘোড়ার সোয়ারী ভাদু।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: