লাকড়ি দিয়ে মেরে বাকৃবি শিক্ষার্থীর হাত ভেঙ্গে দিল ছাত্রলীগ নেতা

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) মো. আনসার আলী নামের এক শিক্ষার্থীকে মেরে হাত ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে। মেজাজ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে দুর্ঘটনাবশত ওই ঘটনা ঘটেছে বলে জানান অভিযুক্ত ফজলুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক মো শাহ আলম।

ভেটেরিনারি অনুষদের ৪র্থ বর্ষের ও ফজলুল হক হলের আবাসিক শিক্ষার্থী আনসার আলী তার লিখিত অভিযোগে জানান, রবিবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জব্বার মোড়ে কামালের দোকানে চা পান করার সময় আমার হলের সিনিয়র ফজলুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক মো শাহ আলম উপস্থিত হয়। তখন তাকে (শাহ আলম) বসতে বললে তিনি অপমান বোধ করেন এবং আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেন। এরপর বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগের সহ- সম্পাদক মো. মেহেদী হাসান বিপ্লব উপস্থিত হলে তার উস্কানিতে শাহ আলম দোকানের লাকড়ি এনে আমার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে আমার ডান হাতের কাঁধের সংযোগস্থল ভেঙ্গে যায় এবং মাথা ও কপালে প্রচন্ড আঘাত পায়। আগামী ১৭ তারিখ আমার ফাইনাল পরীক্ষাও আছে। এমন অবস্থায় আমি পরীক্ষায়ও বসতে পারব কি না তা নিয়ে শঙ্কায় আছি।

অভিযুক্ত শাহ আলম বলেন, আমার যে বিষয়ে রাগ হয় সে বিষয়টা নিয়ে অনেকদিন ধরে জ্বালাতন করছিল আমার জুনিয়র (আনসার)। আমার সাথে এরকম করতে বারবার নিষেধ করলেও সে শোনে নি। পরে গতকাল আবার একই কাজ করলে আমি আমার মেজাজ নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনি। এতে তার হাত ভেঙ্গে যাবে বুঝতে পারি নি। এটা অ্যাক্সিডেন্টালি হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক বলেন, এসব বিষয়ে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। তদন্ত কমিটি গঠন করে খুব তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(Visited 1,120 times, 1 visits today)