১৭-২৩ মে লকডাউনের অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী

aaa

নিউজ ডেস্কঃ আগামী সোমবার (১৭ মে) ভোর ৬টা থেকে ২৩ মে রবিবার মধ্যরাত পর্যন্ত চলমান বিধিনিষেধ বা ‘লকডাউন’ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন শনিবার (১৫ মে) এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী চলমান বিধিনিষেধ শেষে আগামী ১৭-২৩ মে নতুন করে অনুমোদন দিয়েছেন। রোববার এ নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, আমরা সবকিছু এভাবে বন্ধ করে রাখতে চাই না। সবকিছুই স্বাভাবিক নিয়মে চলার জন্য খুলে দিতে চাই। কিন্তু এর জন্য শতভাগ মানুষকে মাস্ক পরতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা মনে করি পুলিশ মাঠে নামলে দেশের সব মানুষই মাস্ক ব্যবহার করবে। কিন্তু বিদ্যমান আইনে পুলিশের কাছে সে ধরনের কোনও আইন বা আইনের ধারা নেই। এজন্যই আইনের কোথাও না কোথাও পুলিশকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। সেটি কীভাবে করা যায় তার উপায় খুঁজতে ডিজি হেলথকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ফরহাদ হোসেন আরও বলেন, বিদ্যমান আইনে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে পারি। এক্ষেত্রে পুলিশের হাতে ক্ষমতা দেওয়া হলে তারা মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে সাবলীলভাবে কাজ করতে পারবে। সাধারণ মানুষ যেভাবে বাজারে গেছে, মাস্ক না পরে গ্রামের বাড়িতে গেছে এবং ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট ইতোমধ্যে দেশে চলে এসেছে। এসব বিষয় বিবেচনা করে আমরা আশঙ্কা করছি করোনা পরিস্থিতি আগামী ২১ মের পর থেকে আরও খারাপ হতে পারে। সে জন্যই ২৩ মে পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়ানো হচ্ছে।

তিনি জানান, এমনিতেই ঈদের ৮/১০ দিন পর ছাড়া মানুষজন রাজধানীতে আসে না। তাই আপাতত ঈদের পর চলমান বিধিনিষেধ মেনে চলার মেয়াদ আরও সাতদিন বাড়ানো হবে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, মানুষ যেভাবে বাড়ি গেছে, যেভাবে মার্কেট করেছে তাতে সংক্রমণ বাড়বে, এ নিয়ে সন্দেহের কোনও কারণ নেই। তবে আবশ্যিকভাবে শতভাগ জনগোষ্ঠীকে মাস্ক পরানোর বিকল্প নেই।

দেশে করোনা সংক্রমণ ও করোনায় মৃত্যুহার কিছুটা নিম্নগামী হলেও ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় রয়েছে সরকার। এ কারণেই চলমান ‘লকডাউন’ ঈদের পরেও অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

চলতি বছর করোনা সংক্রমণ বাড়ায় গত ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত ঢিলেঢালা লকডাউন পালন হলেও সংক্রমণ আরও বেড়ে যাওয়ায় ১৪ এপ্রিল থেকে ‘কঠোর লকডাউন’ ঘোষণা করে সরকার।

কয়েক ধাপে বাড়িয়ে চলমান সেই লকডাউনের মেয়াদ ১৬ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বলবৎ রয়েছে। এসময় আন্তঃজেলা বাস সার্ভিস, ট্রেন ও লঞ্চ বন্ধ রাখা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: