পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলমকে বাকৃবির সংবর্ধনা

রোহান ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি ব্যবসা ও বিপণন বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ও সিন্ডিকেটের সদস্য প্রফেসর ড. শামসুল আলম বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্ত হওয়ায় বাকৃবির পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

মহামারী করোনার কারণে শুক্রবার (৩০ জুলাই) সন্ধ্যায় ভার্চ্যুয়ালি তাকে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সিনিয়র সচিব সাজ্জাদুল হাসান।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সিনিয়র সচিব সাজ্জাদুল হাসান বলেন, ড. শামসুল আলম সবসময় নিরবে নিভৃতে দেশের প্রয়োজনে কাজ করে গেছেন। তার যোগ্যতার ওপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থা ছিলো তাই তার মতো দীর্ঘ বারো বছর প্লানিং কমিশনের মেম্বার থাকার মত বিরল প্রাপ্তি আরো কারো ভাগ্যে ঘটে নি। কৃষি অর্থনীতিবিদদের এগিয়ে নিতেও তার অনেক অবদান রয়েছে। এজন্য সকল কৃষি অর্থনীতিবিদ সর্বদা তার কাছে ঋণী থাকবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, রাজনীতি করে অনেকে মন্ত্রী এমপি হতে পারেন কিন্তু বিরল প্রতিভাবান না হলে কাউকে টেকনোক্রেট প্রতিমন্ত্রী করা হয় না, শামসুল আলম তাদেরই একজন। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থী শিক্ষক সকলের জন্য এটি একটি গর্বের বিষয় যে তিনি এ দুর্লভ সম্মানটি পেয়েছেন। আশা করছি ড. শামসুল আলমের পাণ্ডিত্য, মেধা আগামী দিনেও দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সহযোগিতা করবে।

এ সময় ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে অনুষ্ঠানটি আয়োজনের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। এছাড়া দীর্ঘ বারো বছর কাজের অভিজ্ঞতা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে তার বিভিন্ন স্মৃতির কথা তুলে ধরে সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন তিনি। আগামীতে যেনো সুষ্ঠুভাবে কাজ করে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারেন সেজন্য সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনা করেন।

বাকৃবি উপাচার্য প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয় কিন্তু বরাবরই বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়কে আলাদাভাবে মূল্যায়ন করে। কারণ ওনারা জানেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা হয় এবং এখানকার শিক্ষার্থী শিক্ষক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা কৃষি মন্ত্রণালয়ের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করেছি এবং ড. শামসুল আলম স্যার প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পর পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়েরও সহযোগিতা নিয়ে আমরা এগিয়ে যাবো। সেজন্য আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। পরিশেষে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

উল্লেখ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. নজরুল ইসলামের সম্পাদনায় ড. শামসুল আলমকে নিয়ে নয়া জাতীয় পরিকল্পনার একযুগ শিরোনামে একটি বই আগামী ৭/৮ আগস্ট প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। বইটিতে ড. শামসুল আলমকে নিয়ে দেশের ৭২ জন সাংবাদিকের লেখা স্থান পাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: , ,