এবার বুয়েটকে কলঙ্কিত করলো নাসির

শাবি প্রতিনিধি:
সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের ভর্তি পরীক্ষায় অন্যের হয়ে পরীক্ষা দেওয়ায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র নাসির হোসাইনকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

এর আগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্যের হয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে গিয়ে ধরা পড়েন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। এ ছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একই কায়দায় পরীক্ষা দেওয়ার সময় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট), রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ ও বগুড়া মেডিক্যাল কলেজের কয়েকজনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এসব শিক্ষার্থীর কলঙ্ক চোখের আড়ালে যেতে না যেতেই এবার সামনে চলে এল দেশের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বুয়েটের শিক্ষার্থীর কলঙ্ক।

বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের ছাত্র নাসির। তার গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে। তারিকুজ্জামান রনি নামে এক পরীক্ষার্থীর হয়ে শাবিপ্রবিতে ভর্তিপরীক্ষা দেওয়ার সময় তিনি আটক হন। তবে তারিকুজ্জামানের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায় বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী মেজিস্ট্রেট জিয়াউল হক চৌধুরী ১৯৮০-এর পাবলিক পরীক্ষা আইন ৩(খ) ধারা মোতাবেক নাসিরকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন বলে নিশ্চিত করেন শাবির প্রক্টর অধ্যাপক কামরুজ্জামান চৌধুরী।

পরীক্ষাকেন্দ্র রাগীব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজের প্রধান পরিদর্শক শাবিপ্রবির গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. সাজেদুল করিম নাসিরের কারাদণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা চলাকালীন কেন্দ্রে কর্তব্যরত শিক্ষকরা ভুয়া পরীক্ষার্থীর প্রমাণ পাওয়ায় নাসিরকে আটক করেন। পরে ভ্রাম্যমাণের আদালতের কাছে তাকে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3