প্রায় এক বছর ধরে ঝুলে আছে বাকৃবির পিএইচডি ডিগ্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দেশের অন্যতম সেরা বিদ্যাপীঠ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রদানকৃত সর্বোচ্চ ডিগ্রী হলো পিএইচডি । বিশ্ববিদ্যালয়টি এ পর্যন্ত ৮৩৫ জনকে পিএইচডি ডিগ্রী প্রদান করেছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটে এ সংক্রান্ত বিষয় উত্থাপিত না হওয়ায় প্রায় এক বছর ধরে আটকে রয়েছে ৭৮ জনের পিএইচডি ডিগ্রী।

তথ্য অনুযায়ী, গত ০৫/০৬/২১ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা কমিটির ২৫৩ তম সভায় ৯ জন, ২৭/১০/২০২১ তারিখে ২৫৪ তম সভায় ৪২ জন, ২০/১১/২১ তারিখে ২৫৫ তম সভায় ২ জন ও সর্বশেষ ১২/০৩/২০২২ তারিখে ২৫৬ তম সভায় ২৫ জনসহ বিভিন্ন শিক্ষা বিভাগের মোট ৭৮ জনকে  পিএইচডি ডিগ্রীর জন্য গত ৩১ মার্চ ২০২২ তারিখে অনুষ্ঠিত শিক্ষা পরিষদের সভায় সুপারিশ প্রদান করা হয়। এর আগে ৩ মে ২০২১ তারিখে সর্বশেষ পিএইচডি শিক্ষা পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। প্রায় এক বছর ধরে শিক্ষা পরিষদের সভায়  পিএইচডি সুপারিশের বিষয়টি উপস্থাপিত না হওয়ায় ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন অনেকেই। গত ১১ মে ২০২২ তারিখে পিএইচডি সংক্রান্ত বিশেষ সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা অনিবার্য কারণবসত স্থগিত হয়ে যায়।

এবিষয়ে পিএইচডি সুপারিশপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে সবুজবাংলাদেশ24.কমকে জানায়,  সবকিছু শেষ করার পরও দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষা করতে হচ্ছে তাদের। এরকম ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে, যার প্রভাব বিশ্ববিদ্যালয়টির  আন্তর্জাতিক র‌্যাংকিং এর উপরও পড়বে বলে অনেকেই অভিমত ব্যাক্ত করেন।

পাশাপাশি পিএইচডি সুপারিশপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা প্রায় সকলেই মাঠপর্যায়ে নিযুক্ত। সময়মত ডিগ্রী না পাওয়ায় কর্মক্ষেত্রে তারা সুবিধাবঞ্চিত হচ্ছে বলেও জানা গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা কমিটি কার্যালয়ের কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, একাডেমিক কাউন্সিলে পিএইচডির বিষয়টি পাশ হয়েছে। এখন কোন প্রার্থী ২০০ টাকা ফি জমা দিয়ে নির্দিষ্ট ফাম পুরণ সাপেক্ষে কো-অর্ডিনেটর বরাবর আবেদন করলে সাময়িক একটি পত্র প্রদান করা যেতে পারে যা  তিনি প্রয়োজনে অফিসিয়াল কাজে আপাতত ব্যবহার করতে পারবেন। এই সাময়িক পত্র প্রদানের বিষয়টি আগে থেকেই ছিল বলেও তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3