কে বি হাই স্কুলের এসএসসির ফলাফলে অভিভাবকদের ক্ষোভ প্রকাশ, শিক্ষার মান নিয়ে প্রশ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থিত কে বি হাই স্কুল থেকে এসএসসি বা সমমান ২০২২ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী মাত্র এক তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। এ নিয়ে অনেক অভিভাবক ও শিক্ষার্থী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। প্রশ্ন তুলছেন শিক্ষার মান নিয়ে। খোজ নিয়ে জানা গেছে, এবারের এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় মোট ২৪২ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। তাদের মধ্যে মাত্র ৮৬ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছেন যা মোট শিক্ষার্থীর ৩৫.৫৩ শতাংশ। গতবছর স্কুলটি থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছিলেন ৩২.১৪ শতাংশ। যারা ভাল ফলাফল করেন তাদের অধিকাংশই প্রাইভেট টিউটর ও অভিভাবকদের অক্লান্ত শ্রমের ফসল বলে অনেকেই মনে করেন। ফলে প্রশ্ন উঠেছে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান নিয়ে।

জানা যায়, কে বি হাই স্কুল বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা পরিচালিত একটি ঐতিহ্যবাহী স্কুল। স্কুলটি থেকে এক সময় প্রায় প্রতিবছর ঢাকা বোর্ডে স্টান্ড করতো। গুনে মানে স্কুলটি ছিল ময়মনসিংহের সেরা একটি স্কুল। ধীরে ধীরে স্কুলটি তার ঐতিহ্য হারিয়ে এমন এক অবস্থায় এসেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না- এমনটি আক্ষেপ করে বলেন এক অভিভাবক।

অনেক অভিভাবক অভিযোগ করে বলেন, স্কুলে তেমন লেখাপড়া হয় না, শিক্ষকরা ক্লাসে তেমন কিছু পড়ান না। বিষয়ভিত্তিক শিক্ষকের সংকট। স্কুল সময়ের মধ্যে অনেক শিক্ষার্থী বাহিরে বেরিয়ে এসে ঘোরাঘুরি করেন।

খোজ নিয়ে জানা যায়, দীর্ঘদীন থেকে অবস্থার উন্নতি না হওয়ায়, অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের ময়মনসিংহ শহরের কিছু প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া করাচ্ছেন। আবার অনেকে উপায় অন্তর না দেখে বাধ্য হয়েই বাসার কাছের এই প্রতিষ্ঠানটিতে সন্তাদের পাঠিয়ে দুচিন্তায় আছেন।

বাছবিচার না করে শিক্ষার্থী ভর্তি করানোয় রেজান্ট ভাল হচ্ছে না বলে স্কুলের শিক্ষক মারফত জানা যায়।

দক্ষিন এশিয়ার কৃষি শিক্ষার অন্যত্তম বিদ্যাপিঠ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ন্ত্রনাধীন এই প্রতিষ্ঠানটি যেখানে গুনে মানে ভাল থাকার কথার ছিল সেখানে বর্তমানে শিক্ষার মান ও এসএসসিতে শিক্ষার্থীদের অপ্রত্যাশিত ফলাফল অভিভাবকদের হতাশাগ্রস্থ করেছে। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি প্রত্যাশা করছেন অভিভাবকগণ।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3