ইউরোপে ফজলি আম

নিউজ ডেস্ক: ‘রসালো আম’ জনপ্রিয়তা ও সুস্বাদুর বিচারে ফলের রাজা। দেশের সঙ্গে প্রবাসেও এর স্বাদ নিতে ভুল করে না বাংলাদেশি কিংবা উপমহাদেশের মানুষ। দক্ষিণ ইতালি ও স্পেন থেকে আসা আমের বিশাল সরবরাহ শুরু হয় ২০২১ সালের জুলাই মাসে বাংলাদেশি গ্রোসারী শপগুলোতে। দামেও সস্তা সেই সঙ্গে সুস্বাদু ও বড় আকারের। ইতালি ও ইউরোপে আমের ফলন ও বাজারে এতো আম দেখে অবাক উপমহাদেশের প্রবাসীরা।

নভেম্বর মাস এসে গেছে কিন্তু এখনো কমতি নেই আমের। আগে কেজি ৬শ’ থেকে ৮শ’ টাকা পর্যন্ত থাকলেও বর্তমানে আমের খুঁচরা মূল্য বাংলাদেশি ২শ’ থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে।

মৌসুমী ফল আম যা মধুমাস জৈষ্ঠ্যতে এসে বাঙালির ঘরে প্রতিটি উৎসবে একাকার হয়ে যায়। এই সময়ে প্রবাসীরাও আমের স্বাদ গ্রহণ করতে চেষ্টা চালায়, যেকোনো মূল্যে। দেশে শ’ টাকা কেজিতে আম হলেও ইতালিতে তা ৬শ’ থেকে ৮শ’ টাকা প্রতি কেজি ছিল সব সময়। কিন্তু হঠাৎ করে ২০২১ সালের জুলাই মাস থেকে ইতালি ও ইউরোপের বাংলাদেশি গ্রোসারী শপে ফজলি আমের ব্যাপক আমদানি শুরু হয়। ইতালির দক্ষিণের সিসিলি দ্বীপ ও স্পেনে গত কয়েক বছর যাবত আমের বাণিজ্যিক চাষ শুরু করেছে দেশগুলো।

জানা গেছে, এবছরই প্রথম ফলন আসতে শুরু হয়েছে আম গাছে। দাম খুঁচরা মূল্য ২শ’ থেকে আড়াইশ’ টাকা কেজি। অক্টোবরের শেষে এসেও আমের সরবরাহের কোনো কমতি নেই বাজারে। আমগুলো তুলনামূলক সস্তা ও মানসম্মত সুস্বাদু। প্রবাসে বসে সহজে দেশি আম হাতের কাছে পেয়ে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এখন খাদ্য তালিকায় আম প্রবেশ করেছে প্রবাসীদের।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3