ইরানে তরুণীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ইরানে পুলিশি হেফাজতে মাশা আমিনি নামে এক তরুণীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলমান বিক্ষোভে শত শত বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ পর্যন্ত দেশটির ৮০টির বেশি শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এ ছাড়া বিক্ষোভে মৃতের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে ৩৫-এ ঠেকেছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি এ পরিস্থিতিতে বিক্ষোভ দমনে আরও কঠোর হওয়ার বার্তা দিয়েছেন।

ইরানের মাসহাদ শহরে চলমান বিক্ষোভে নিহত এক নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে শনিবার টেলিফোন করেন প্রেসিডেন্ট রাইসি। এ সময় তিনি বলেন, দেশের শান্তি ও নিরাপত্তাকে যাঁরা আমলে নিচ্ছেন না, তাঁদের পরিকল্পিতভাবে মোকাবিলা করা হবে।

মাথায় হিজাব না থাকায় গত ১২ সেপ্টেম্বর রাজধানী তেহরানে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গেপ্তার হন মাশা আমিনি নামের ২২ বছরের এক তরুণী। গ্রেপ্তার করে হেফাজতে নিয়ে যাওয়ার দুই ঘণ্টার মধ্যে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

পরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চারদিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় মাশার। সরকারি ভাষ্য অনুযায়ী, হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের সময়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়াই তার মৃত্যুর কারণ; তবে বিক্ষোভকারী, মাশার পরিবার ও স্বজনদের অভিযোগ— হেফাজতে মাথায় গুরুতর আঘাত করার পরই জীবনসংকটে পড়েন তিনি এবং ‍ওই আঘাতের জেরেই তার মৃত্যু হয়।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3