বসে থেকে হঠাৎ উঠে দাঁড়ালে চোখে অন্ধকার দেখার কারণ কি

তাসনিম ইলিন ইসলাম:

আমাদের মধ্যে অনেকেই একটা সাধারণ সমস্যার মুখোমুখি হই। অনেকক্ষণ ঝুঁকে বসে থেকে ওঠার পর আমরা চোখে অন্ধকার দেখি, মাথা ঝিমঝিম করে, অনেকের মাথা ঘোরে।এর পিছনে লুকিয়ে থাকতে পারে বড় কোনও জটিল কারণ। হতে পারে কোনও শারীরিক সমস্যা। এই সমস্যায় আমরা অনেকেই ভুগে থাকি। তখন চারিদিক অন্ধকার দেখি। তবে এটি মাত্র কয়েক সেকেন্ডের জন্যই স্থায়ী হয়। তাই খুব এখটা মাথা ঘামাই না এই ছোট্ট বিষয়টি নিয়ে।

কিন্তু, এটাও হতে পারে মারাত্মক শারীরিক সমস্যার একটি। বিভিন্ন কারণেই এটি হতে পারে।

ওষুধঃ
কোনও ব্যথা, হার্টের অবস্থা এবং উচ্চ রক্তচাপের জন্য নির্ধারিত ওষুধগুলি আপনার সংবহনতন্ত্রকে প্রভাবিত করতে পারে। এই ওষুধগুলির জন্য অনেক সময় মাথা ঘোরাতে পারে। যদি এই সমস্যা বেশি হয়, আপনার ডোজ নিয়ে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন।

ডিহাইড্রেশনঃ
পর্যাপ্ত তরল পান না করলে বমি বমি ভাব, দুর্বলতা, মাথা ঘোরা, নিম্ন রক্তচাপ এবং অজ্ঞান হয়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে আচমকা উঠে বসলে বা দাঁড়ালে মাথা ঘুরে যাওয়া অস্বাভাবিক নয়।

অ্যানিমিয়া বা শরীরে রক্তশূন্যতাঃ
রক্তশূন্যতা হল আপনার রক্তে স্বাস্থ্যকর লাল রক্তকণিকা বা হিমোগ্লোবিনের অভাব, যা আপনার মস্তিষ্ক সহ আপনার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে অক্সিজেন বহন করে। রক্তাল্পতার বৈশিষ্ট্য হল ক্লান্তি, তবে এটি আপনাকে অজ্ঞান এবং মাথা ঘোরা অনুভব করতে পারে।

হার্ট অ্যারিথমিয়াঃ
এই অবস্থা (একটি অস্বাভাবিক হৃদস্পন্দন হিসাবেও পরিচিত) হল যখন আপনার হৃদস্পন্দন খুব দ্রুত, খুব ধীর বা এমনভাবে হয় যা আপনার মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহ হ্রাস করে। এগুলোর যে কোনোটিই আপনাকে অজ্ঞান করে দিতে পারে।

অর্থোস্ট্যাটিক হাইপোটেনশনঃ
এটিকে পোস্টুরাল হাইপোটেনশনও বলা হয়, এটি হল হেড রাশ যা আপনি কখনও কখনও দাঁড়ানোর সময় অনুভব করেন। এটি যে কারোর সাথে ঘটতে পারে। আপনি যদি নির্দিষ্ট ওষুধ গ্রহণ করেন, তার দীর্ঘদিনের প্রভাবে এরকম হতে পারে। অথবা আপনার বয়স বাড়ার সাথে সাথে এটি প্রায়শই ঘটতে পারে।

স্ট্রেস এবং প্যানিক আক্রমণঃ
আগে কখনও একটি স্ট্রেস বা উদ্বেগ অ্যাটাক হয়েছিল? যদি সেই ইতিহাস থাকে, তবে এই ধরণের মাথা ঘোরা বা চোখে অন্ধকার দেখার ঘটনা প্রায়ই ঘটতে পারে। দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। এক্ষেত্রে সামান্য মাথাব্যথাতেও ভুগতে পারেন আপনি।

কি করা উচিত এমন হলে?
দাঁড়ানোর আগে কয়েক সেকেন্ডের জন্য বিছানার প্রান্তে বসুন এবং আপনার শরীরকে সজাগ হতে সময় দিন। হাঁটতে শুরু করার আগে কয়েক সেকেন্ড বসে নিন। একইভাবে, সকালে বা দীর্ঘ সময়ের পরে শুয়ে থাকা, লাঞ্চ বা ডিনারের পরে উঠে দাঁড়ানোর সময়ে ও গোছল করার পরে সতর্ক থাকুন।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3