নতুন ক্যাডার সার্ভিস চালু উপলক্ষে বাকৃবিতে আনন্দ মিছিল

বাকৃবি প্রতিনিধিঃ

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের অধীনে সহকারী পরিচালক/ কৃষি বিপণন কর্মকর্তা পদে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বি.সি.এস.) এ ক্যাডার সার্ভিস চালু উপলক্ষে আনন্দ মিছিল করেছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় চত্ত্বরে এ আনন্দ মিছিল হয়। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সম্মুখ থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় একই স্থানে এসে শেষ হয়।

এতে কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর মো. আখতারুজ্জামানসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন। এরপর শিক্ষার্থীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

কৃষি অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সাইদুর রহমান বলেন, এটা বহুদিনের প্রত্যাশা ছিল। কৃষি সম্প্রসারণের অধীনে কৃষিতে ক্যাডার সার্ভিস চালু আছে। কৃষি বিপনন অধিদপ্তরের অধীনে সহকারী পরিচালক/ কৃষি বিপণন কর্মকর্তা পদে আগের সবাই আবেদন করতে পারত। এখন আর সেটা হবে না। শুধু আমাদের অনুষদের শিক্ষার্থীরাই আবেদন করতে পারবে। এতে করে বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে আরও উন্নতি লাভ করবে বলে আশা করছি।

কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য সাজ্জাদুল হাসান সবুজবাংলাদেশ24.কম কে বলেন এটি ফ্যাকাল্টির দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। শওকত মোমেন শাহজাহান থেকে শুরু করে বর্তমান কৃষি মন্ত্রী ড. মুহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক, প্রফেসর ড. এমএ সাত্তার মন্ডল ও প্রফেসর ড. শামসুল আলম সহ অনেকের সহযোগীতায় এটিকে এগিয়ে নিয়ে আজকে অর্জিত হয়েছে বলে জানান তিনি। কৃষি অর্থনীতিবিদ সমিতির এই সভাপতি বলেন আজকের এই অর্জনের মাধ্যমে কৃষি অর্থনীতির গ্রাজুয়েটরা তাদের বিষয়ভিত্তিক জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে দেশের অগ্রসরমান অর্থনীতিকে আর সমৃদ্ধ করতে পারবেন।

প্রাথমিকভাবে কতজন এই পদে নিয়োগ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে সাজ্জাদুল হাসান বলেন, প্রতিটি উপজেলায় এই পর্যায়ে না হলেও বড় বড় উপজেলাগুলো নিয়ে এক একটি সার্কেল করে নিয়োগ দেয়া হতে পারে এবং পরবর্তীতে ফিজিবল হলে সকল উপজেলায় নিয়োগ হতে পারে।

(Visited 1 times, 1 visits today)