কানাডা প্রবেশের জন্য লাগবে ‘ভ্যাকসিন পাসপোর্ট’

মো. আব্দুর রহমান
আন্তর্জাতিক ভ্রমণের জন্য ভ্যাকসিন পাসপোর্টের ধারণা পছন্দ করেছে উল্লেখযোগ্য সংখ্যাক কানাডিয়ান এবং দেখা যাচ্ছে যে তাদের সরকার একটি সমাধান বের করতে চলেছে।

কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী পাট্টি হাজদু বলেছেন, সরকার “ভ্যাকসিন পাসপোর্ট” ধারণাটি সমর্থন করে এবং ভ্যাকসিন নেয়া কানাডিয়ানদের আন্তর্জাতিক ভ্রমণে যেতে ভ্যাকসিন প্রশংসাপত্রের একটি ফর্ম চালু করবে।

ইপসোসের সমীক্ষায় দেখা গেছে, ৭৮% কানাডিয়ানরা একমত (৫৬% দৃঢ় ভাবে সম্মত) যে, কানাডায় প্রবেশকারী সমস্ত ভ্রমণকারীদের একটি ভ্যাকসিনের পাসপোর্ট থাকা উচিত। তুলনামূলকভাবে, আমেরিকানদের একটি সংখ্যালঘু (৭১%) একমত যে, ভ্রমণকারীদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের আগে একটি ভ্যাকসিনের পাসপোর্ট দেখাতে হবে।

চার ভাগের প্রায় তিন ভাগ (৭২%) কানাডিয়ান সম্মত যে, ভ্যাকসিন পাসপোর্টগুলি ভ্রমণ এবং বড় ইভেন্টগুলিকে নিরাপদ করতে কার্যকর হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী পাট্টি হাজদু বলেছেন, কানাডার বিদ্যমান অ্যাপ্লিকেশনটি (ArriveCAN) গ্রহণ করে নিজস্ব ভ্যাকসিন পাসপোর্ট প্রোগ্রামটি দ্রুত এগিয়ে নেওয়া সক্ষম হবে।

এদিকে ভ্যাকসিন গ্রহণ করা সনদধারীদের অবাধে প্রবেশাধিকার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউরোপের বেশ কিছু দেশ। সিসিলি, সাইপ্রাস এবং রোমানিয়াসহ কিছু দেশ ইতোমধ্যে করোনার টিকা গ্রহণ করা ভ্রমণকারীদের জন্য কোয়ারেন্টিন বাধ্যবাধকতা তুলে নিয়েছে। কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে আরোগ্য লাভ করা ব্যক্তিদের জন্য ভ্রমণের দরজা খুলে দিয়েছে আইসল্যান্ড ও হাঙ্গেরি।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন এ ধরনের সনদ চালুর জন্য সদস্যদেশগুলোর সম্মতি আদায়ের চেষ্টা করছে। জোটের সদস্যদেশ গ্রিস এর পক্ষে মত দিয়েছে। দেশটির দাবি, এটা করা গেলে নাজুক পর্যটন খাতে প্রাণ ফিরে আসবে। ইউরোপীয় কমিশন বলেছে, ১১ সদস্যদেশ এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করেছে যে তারা টিকা সনদ চালু করতে যাচ্ছে এবং আরও সাত দেশ এই পদক্ষেপ নিতে আগ্রহী।

তবে টিকা পাসপোর্ট বা রোগ-প্রতিরোধ পাসপোর্টের এই ধারণাও বেশ বিতর্কিত। সবাই এটি গ্রহণে সম্মত না হলে অনেকের ২০২১ সালের গ্রীষ্মকালীন ছুটির স্বপ্ন হতাশায় পরিণত হতে পারে।

তথ্য সূত্র: ফোর্বস

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: , ,