পশু চিকিৎসায় ডিগ্রিধারী হলেন ভারতের নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

mansuk

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারত সরকার যখন করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলা ও ভ্যাকসিন দেয়ার ক্ষেত্রে হিমশিম খাচ্ছে তখন দেশটির নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন পশু চিকিৎসায় ডিগ্রিধারী মানসুখ মান্দাভিয়া।

তিনি আগে থেকেই রাসায়নিক ও সার মন্ত্রণালয় এবং বন্দর ও জলপথ মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। এখন বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে করোনার এই দুঃসময়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব তার ওপর ন্যস্ত হলো।

গুজরাট এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি থেকে পশু চিকিৎসা বিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুখ মান্দাভিয়া। এরপর রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স করেন। গুজরাটের ৪৯ বছর বয়সী এ সংসদ সদস্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বভার গ্রহণ করলেও এখনও তার পূর্বের মন্ত্রণালয় ধরে রেখেছন।

ভারতে চলমান করোনাভাইরাস মোকাবিলায় অক্সিজেনের ব্যাপক ঘাটতির কারণে সমালোচনার মুখে পড়েন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। করোনাভাইরাস মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ সময়ে পদত্যাগ করা হর্ষবর্ধনের স্থলাভিষিক্ত হলেন মান্দাভিয়া।

২০০২ সালে সর্বকনিষ্ঠ এমএলএ নির্বাচিত হন মান্দাভিয়া। ২০১৬ সালে তিনি নরেন্দ্র মোদি সরকারে প্রথম যোগদান করেন।

অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের (এবিভিপি) সদস্য হিসেবে রাজনৈতিক জীবনের সূচনা। এর পর তাঁকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এক পর্যায়ে বিজেপিতে যোগদান করেন তিনি।

২০০২ সালে সর্বকনিষ্ঠ হিসেবে ২৮ বছর বয়সে বিধায়ক নির্বাচিত হন। এরপর ২০১২ সালে গুজরাট থেকে রাজ্যসভায় জায়গা করে নেন তিনি। আর নরেন্দ্র মোদির সরকারে দায়িত্ব পান ২০১৬ সালে।

রোড ট্রান্সপোর্ট অ্যান্ড হাইওয়ে এবং ফার্টিলাইজার অ্যান্ড কেমিক্যাল বিষয়ক মন্ত্রিত্ব সামলান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ আবার আমার ওপর বিশ্বাস ও আস্থা রেখেছেন। তাই তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

উল্লেখ্য বুধবার সন্ধ্যায় ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নিয়েছেন ৪৩ জন নতুন মন্ত্রী। এর মধ্যে নতুন মুখ ৩৬ জন। আর বাকিরা পদোন্নতি পেয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: ,