ঘাম থেকে মাপা যাবে রক্তের গ্লুকোজ

এস এম আবু সামা আল ফারুকীঃ

আঙ্গুলের একটি স্পর্শের মাধ্যমে মাপা যাবে রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা। আঙ্গুলের মাথা থেকে সংগৃহীত ঘাম বিশ্লেষণ করে ডায়াবেটিস রোগীর রক্তের গ্লুকোজ নির্ণয়ের জন্য এমন যন্ত্রই আবিষ্কার করেছেন গবেষকরা। যন্ত্রটি আঙ্গুল ফুটো করে রক্ত পরীক্ষার মত যন্ত্রনাদায়ক পদ্ধতির বিকল্প হবে বলে আশা করছেন গবেষক দল।

আমেরিকান ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশনের তথ্যমতে আমেরিকাতে ৩৪০ লক্ষের উপর শিশু ও বৃদ্ধ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। ডায়াবেটিস রোগীর জন্য নিয়মিত রক্তের গ্লুকোজ নির্ণয় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। কিন্তু এই পদ্ধতিতে রোগীর আঙ্গুল ফুটো করে রক্ত নেয়া হয় যা যন্ত্রণাদায়ক এবং এ কারণে অনেকেই গ্লুকোজ পরীক্ষা করতে অনীহা দেখায়। যা তাদের জন্য মারাত্মক হুমকির কারন হতে পারে।

তাই গবেষকরা বিকল্প হিসেবে দেহের ঘাম থেকে রক্তের গ্লুকোজ নির্ণয়ের পদ্ধতি বের করেছেন। কিন্তু ঘামে রক্ত অপেক্ষা অনেক কম পরিমাণ গ্লুকোজ থাকে। এছাড়া প্রত্যেক ব্যক্তির ত্বক এবং ঘামের হার ভিন্ন হয়। ফলে সবার ক্ষেত্রে ঘাম ও রক্তের গ্লুকোজের অনুপাত একই নয়।

এই সমস্যা সমাধান করে তাই প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য আলাদা অ্যালগরিদম বের করার ব্যবস্থা করেন ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার ন্যানোইঞ্জিনিয়ারিংয়ের জোসেফ ওয়েং এবং তার সহকর্মীরা। প্রত্যেক মানুষের রক্তের গ্লুকোজ ও ঘামের গ্লুকোজ নির্ণয় করে তারা সবার জন্য আলাদা হিসাব করার উপযোগী যন্ত্র উদ্ভাবনে সক্ষম হন। যন্ত্রটির সাথে আছে একটি সেন্সর৷ যেখানে স্পর্শ করলে সেখানে অবস্থিত পলিভিনাইল অ্যালকোহল হাইড্রোজেল আঙ্গুল থেকে সামান্য পরিমান ঘাম শোষণ করে। এরপর এনজাইম দ্বারা বিশ্লেষণ করে তাকে তড়িৎ সংকেতে রূপান্তর করা হয় যা যন্ত্রটির হিসেব অংশে প্রেরিত হয়।

এই পদ্ধতিতে মাসে এক থেকে দুইবার রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে গ্লুকোজ নির্ণয়ের প্রয়োজন পড়বে৷ যন্ত্রটি শতকরা ৯৫ শতাংশ নির্ভুল পাঠ দিতে সক্ষম। তবে পুরো ব্যাবস্থাটি এখনো গবেষণার আওতায় আছে।

উল্লেখ্য, এর আগে স্মার্টওয়াচে ঘাম দিয়ে গ্লুকোজ মাপার প্রযুক্তি আবিষ্কার হয়েছিল। এতে ঘাম থেকে গ্লুকোজ মাপার বিষয়টি সহজ। হাতে থাকা যন্ত্রটির ওপরে এক ফোঁটা ঘাম ফেললেই তা থেকে গ্লুকোজের পরিমাণ বের করে ফেলতো।

সূত্রঃ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: , ,