বাংলাদেশের আকাশে দেখা যাবে “স্যাটেলাইট ট্রেন”

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্কঃ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ধনকুবের, ব্যবসায়ী ও প্রযুক্তিবিদ এলন মাস্কের ‘স্টারলিংক প্রজেক্ট’-এর ‘স্যাটেলাইট ট্রেন’ দেখা যাবে বাংলাদেশের আকাশে।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) সন্ধ্যা ৭টা ১৬ মিনিট থেকে ২০ মিনিট পর্যন্ত (মোট ৪ মিনিট) ২৩টি স্যাটেলাইটের দীর্ঘ সারি (ট্রেন) দেখা যাবে। এ ছাড়াও শুক্রবার (১৪ মে) ভোরে স্যাটেলাইট ট্রেনের বিশাল বহর দেখা যাবে। আকাশ পরিষ্কার থাকলে ভোর ৪টা ৪ মিনিট থেকে ৪টা ১৪ মিনিট পর্যন্ত ৬১টি স্যাটেলাইটের ট্রেন দেখা যাবে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার স্যাটেলাইটগুলো উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে পূর্ব-দক্ষিণ দিকে বিলীন হবে এবং ভোরের সারিটি দক্ষিণ-পশ্চিম দিক হতে উত্তর-পূর্ব দিকে বিলীন হতে থাকবে! স্টারলিংক প্রজেক্টের স্যাটেলাইট ট্রাকিং ওয়েবসাইট ফাইন্ড স্টারলিংক ডট কম থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

স্টারলিংক হলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত প্রযুক্তিবিদ এলন মাস্কের স্যাটেলাইট নির্ভর ইন্টার ব্যবস্থা গড়ে তোলার প্রজেক্ট। এলন মাস্ক পুরো পৃথিবীকে তার স্যাটেলাইট দিয়ে ঘিরে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছে। মোট ৪২ হাজার স্যাটেলাইটের এক জাল তৈরি করছেন তিনি। উদ্দেশ্য, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পৃথিবী সব অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা দেওয়া।

এজন্য এলন মাস্ক ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠা করেন স্পেসএক্স। মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠাতে তার এই বিশাল আয়োজন। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার এই প্রজেক্টের নাম দেওয়া হয়েছে ‘স্টারলিংক প্রজেক্ট’। ৪২ হাজার থেকে ইতোমধ্যে ১৪৪৩টি স্যাটেলাইট পাঠিয়েছেন তিনি। সবশেষ গেল ২৯ এপ্রিল একসঙ্গে ৬০টি স্যাটেলাইট পাঠিয়েছেন। এলন মাস্কের একত্রে এত স্যাটেলাইট পাঠানোকে বলা হচ্ছে ‘স্যাটেলাইট ট্রেন’।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণে বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান নাসা। যুক্তরাষ্ট্রে সরকারের মালিকানাধীন এই প্রতিষ্ঠান বিশ্বে প্রথম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করে। আর বিশ্বে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় বেসরকারি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপক প্রতিষ্ঠান এলন মাস্কের স্পেসএক্স।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3