শুরু হল “ডিজিটাল খামারি”র পথচলা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

হাতের স্মার্টফোন ব্যবহার করেই খামারি পৌছাবে ডাক্তারের কাছে, জানাতে পারবে তার সমস্যা, জানতে পারবে প্রতিকার। এমনই এক প্লাটফর্ম “ডিজিটাল খামারি”।

তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে পোল্ট্রি ও লাইভস্টক সেক্টরের পর্যবেক্ষণ সেবা ও মান উন্নয়নের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করল ডিজিটাল খামারী। এ লক্ষ্যে আজ ময়মনসিংহের সদর উপজেলার ২৩ নং ওয়ার্ডের সুতিয়াখালী এলাকায় ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এ ওয়ার্কশপে আগত খামারীদের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনা দেন “ডিজিটাল খামারি” প্রকল্পের পরিচালক বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারাসাইটোলজি বিভাগের প্রফেসর ড. মো: সহিদুজ্জামান সবুজ। তিনি বলেন, “বর্তমান সময়ে খামারের সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত ও খামারীদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করতে তথ্য প্রযুক্তির ব্যাবহারের বিকল্প নেই।”

ওয়ার্কশপে অংশগ্রহণ করেন প্রায় অর্ধশতাধিক খামারী। এসময় খামারিদের “ডিজিটাল খামারি” এ্যাপ ব্যাবহার করে ওয়েবসাইটে নিবন্ধন ও সেবা নেয়ার পদ্ধতি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

ওয়ার্কশপে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রের উপপরিচালক ড. মোঃ আবু সাঈদ সরকার। তিনি প্রজনন সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা, রোগ ও তার প্রতিকার তুলে ধরেন খামারিদের মাঝে।

ওয়ার্কশপের পরবর্তী কার্যক্রম হিসাবে এলাকার বিভিন্ন খামার ঘুরে দেখেন ডিজিটাল খামারি কর্মীরা। এসময় খামারিদের বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করেন ডা. আজরান কবীর সামিন।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3