করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট এর নাম কেন ওমিক্রন, জবাব দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

সাবরিন জাহান: দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম সনাক্ত হওয়া কোভিডের নতুন রূপটির নামকরণ করেছে ওমিক্রন (Omicron)। এ যাবৎ, করোনাভাইরাসের বিভিন্ন ভেরিয়েন্ট এর নামকরণ করা হয় গ্রীক বর্ণমালার ক্রম অনুসারে। সেই নিয়ম অনুযায়ী নতুন রূপান্তরটির নাম হওয়া উচিত ছিল ‘ন্যু’ (Nu)। কিন্তু, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) শুধু ন্যু ই নয় বরং এড়িয়ে গেলেন পরের বর্ণ শাই (XI)-ও। তবে সম্প্রতি এর পেছনের কারণ জানিয়েছে তারা।

সেপ্টেম্বর এর শেষে আমেরিকায় (USA) হুহু করে ছড়াতে থাকা করোনাভাইরাসের মিউ (Mu) ভেরিয়েন্ট এর মিউটেশন এর ফলশ্রুতিতে বাধ সাধে টিকার কার্যকারিতা। এরমধ্যেই মাথাচাড়া দিয়েছে নতুন ভেরিয়েন্ট, বি.১.১.৫২৯ । নিয়মানুযায়ী, এই নতুন ভেরিয়েন্টটির নাম হওয়া উচিত ছিল ‘ন্যু’। কিন্তু, ‘হু’-এর বিশেষজ্ঞরা সতর্কতার সঙ্গে ন্যু এবং শাই – গ্রিক বর্ণদুটি এড়িয়ে ওমিক্রন-কে বেছে নিয়েছেন।

জানা যায়, ন্যু এর সাথে মিল রয়েছে ‘নিউ’ শব্দের যাতে ঘটতে পারে বিপত্তি আর নয়া ভেরিয়েন্টটির নাম ন্যু দিলে, পরেরটির নাম স্বাভাবিকবেই শাই দিতে হত। যার ইংরেজি বানান (Xi)। আর চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-এর (XI Jinping) নামের বানানও একই। ডব্লুএইচওর (WHO)-র এক সূত্র সাফ জানিয়েছে, এই দুই গ্রিক বর্ণকে ইচ্ছাকৃতভাবেই বাদ দেওয়া হয়েছে।

তবে এই নিয়ে বিশ্বজুড়ে সমালোচার মুখে পড়েছে সংস্থাটি। শোনা যাচ্ছে চিনের চাপেই এমনটা করেছে হু আর তাই সংস্থাটির বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3