এবার পিল বা ক্যাপসুল রূপে করোনা টিকা?

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ কেমন হবে যদি করোনার টিকা পিল আকারে বাজারে আসে? টিকার ইনজেকশন ব্যবহার করা অনেকের জন্য আতংকের এবং বিব্রতকর বটে। তাছাড়া টিকা নিতে যাতে টিকা কেন্দ্রে যেতে না হয় এবং জনাকীর্ণ পরিবেশ থেকে সংক্রমিত হবার ভয় থেকে রেহাই পাওয়া যায়- এসব লক্ষ নিয়ে ইসরায়েলের ঔষধ কোম্পানি ওরামেড কাজ করে যাচ্ছে টিকার ওরাল (মুখে খাওয়া) প্রয়োগ নিয়ে। চলতি বছরের আগস্ট মাসেই তাদের ট্রায়াল শুরু করার জন্য তোড়জোড় চালাচ্ছে তারা।

কোম্পানির সিইও নাদাভ কিডরোন বলেছেন উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য ওরাল বা মুখে খাওয়া ভ্যাক্সিন অনেক বেশি গ্রহনযোগ্যতা লাভ করবে কারণ প্রচলিত পদ্ধতির মত তাতে টিকা প্রদান ক্যম্পেইন চালানোর প্রয়োজন পড়বে না। টিকা প্রদান সহজ হবে ও ব্যবস্থাপনা খরচও অনেক কমে আসবে।

এছাড়া একটি সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে প্রায় ১৯০ লক্ষ আমেরিকান নাগরিক যারা ইনজেকশনের মাধ্যমে টিকা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে তারা বলেছে যদি পিলের মাধ্যমে টিকা নেওয়া যায় তবে তারা এই টিকা নিতে আগ্রহী। এছাড়াও ইনজেকশন ব্যবহারে উদ্ভুত প্লাস্টিক বর্জ্য ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সমস্যাও কমে আসবে বলে জানায় কোম্পানিটি।

অনেক সুবিধা থাকলেও মৌখিক ভাবে প্রদান করা ভ্যাক্সিন খুবই কম রয়েছে। কারণ অন্ননালি ও পাকস্থলীর অম্লীয় ও ক্ষারীয় বিভিন্ন পরিবেশ অতিক্রম করে দেহে প্রবেশ করতে হবে ভ্যাক্সিনকে। ফলে যাত্রাপথেই যেন ভ্যাক্সিনটি বিনষ্ট না হয় সেই চ্যালেঞ্জকে ভ্যাক্সিন প্রস্তুতকারকদের মাথায় রাখতে হয়। পোলিও টিকা এমনই একটি উদাহরণ।

ওরামেড বলেছে তারা অন্ননালির প্রতিকূল পরিবেশে টিকে থাকতে পারবে এরকম ক্যাপসুল বানানোর সক্ষমতা ও পদ্ধতি উদ্ভাবনে সফল হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে তারা নিজ দেশে ভ্যাক্সিনের ট্রায়াল শুরু করবে বলে জানিয়েছে।

সূত্রঃ গালফ নিউজ

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: ,