সিরাজগঞ্জে স্পিরিট পানে ৪ জনের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক:

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের বিষাক্ত রেকফাইড স্পিরিট পানে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

সর্বশেষ সোমবার (৯ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে পিন্টু শেখের মৃত্যু হয়। এর আগে রোববার (৮ আগস্ট) নিজ বাড়িতে দুজন মারা যান।

এছাড়া স্পিরিট পানে অসুস্থ হয়ে সাবেক ইউপি সদস্য বাবু সেখ ও হযরত আলী নামের আরও দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় সনজিদ কুমার ভৌমিক নামের এক স্পিরিট বিক্রেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

মৃতরা হলেন- সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে আব্দুল ওয়াহাব (৩২), সিকিম আলীর ছেলে মো. আব্দুল (৪৫), সড়াইচন্ডি নতুনপাড়া গ্রামের কালু সেখের ছেলে তাহের সেখ (৪৮) ও বিলধলি পুকুরচালা এলাকার মৃত ঘুইয়া শেখের ছেলে পিন্টু শেখ (৪০)।

স্থানীয় শিয়ালকোল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান শেখ জানান, ছয়জনই মাঝেমধ্যে মদপান করতেন। শুনেছি শনিবারও তারা মদপান করায় পরে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে ছয়জনের মধ্যে চারজন মারা যান।

সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘শনিবার (৭ আগস্ট) ছয়জন মিলে পার্শ্ববর্তী কামারখন্দ উপজেলা সদরের কাকলী হোমিওপ্যাথিক দোকানদার সনজিদ কুমার ভৌমিকের কাছ থেকে রেকটিফাইড স্পিরিট কিনে শ্যামপুর এলাকার একটি শ্বশানঘাটের কালিমন্দিরের পাশে বসে পান করে। এরপর সবাই যার যার বাড়িতে চলে যান। ওইদিন কিছু না হলেও রোববার রাতে বিষক্রিয়া শুরু হওয়ায় ছয়জনই অসুস্থ হয়ে পড়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সোমবার ভোরে দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এবং একজন হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। মৃতদের স্বজনরা পুলিশকে অবহিত না করে সোমবার সকালে আব্দুল ওয়াহাব ও আব্দুলকে দাফন করেন। বিষয়টি সকালে জানতে পেরে দ্রুত পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দাফনের আগে তাহেরের মরদেহ উদ্ধার করা। পরে মরদেহটি সুরতহাল শেষে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, ‘এদিকে গুরুতর অবস্থায় রাতে পিন্টু শেখকে বগুড়ায় নেয়ার পথে মারা যান। এছাড়া গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সাবেক ইউপি সদস্য বাবু সেখ ও হযরত আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘অসুস্থ একজনের তথ্যের ভিত্তিতে কামারখন্দ বাজারের কাকলী হোমিওপ্যাথিক দোকানে অভিযান চালিয়ে স্পিরিট বিক্রেতা সনজিদ কুমার ভৌমিককে আটক করা হয় এবং তার দোকান থেকে বিপুল পরিমাণ রেকটিফাইড স্পিরিট জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3