জামালপুরে ট্রেন-পিকআপ সংঘর্ষ, বেঁচে গেলেন দুই কৃষিবিজ্ঞানী

নিউজ ডেস্ক:

আজ মঙ্গলবার (১৬ নভেম্ভর) বিকেলে, জামালপুরে আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের একটি পিকআপ গাড়ি চ্যাপ্টা হয়ে রেললাইনের পাশে ছিটকে পড়েছে। ট্রেনের সাথে ধাক্কা লাগার কয়েক সেকেন্ড আগে ওই পিকআপের যাত্রী দুই কৃষি বিজ্ঞানী ও চালক লাফিয়ে নেমে পড়ায় তারা তিনজনই অক্ষত অবস্থায় প্রাণে বেঁচে গেছেন।

জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ রেলপথের জামালপুর শহরের বনপাড়া গোরস্থান মোড় লেভেল ক্রসিংয়ে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও জামালপুর আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্র সূত্র জানায়, আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের শেরপুর সরেজমিন বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. শামছুর রহমান ও সহকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. পানাউল্লাহ মঙ্গলবার বিকেলে শেরপুরের কর্মস্থল থেকে অফিসের পিকআপে করে জামালপুর শহরের বাসায় ফিরছিলেন। শহরের ভেতরে যানজট এড়াতে পিকআপ নিয়ে তারা নতুন বাইপাস সড়ক হয়ে বনপাড়া গোরস্থান মোড় হয়ে যাচ্ছিলেন। বনপাড়া গোরস্থান মোড়ে রেলনাইনের লেভেল ক্রসিংয়ে তাদের পিকআপের ইঞ্জিন আকস্মিক বন্ধ হয়ে যায়। একই সময়ে দেওয়ানগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা দ্রুতগামী আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেন জামালপুর রেলস্টেনের দিকে যাচ্ছিল।

এ সময় ট্রেন আসছে টের পেয়ে ড. মো. শামছুর রহমান ও ড. মো. পানাউল্লাহ দ্রুত পিকআপ থেকে নেমে পড়েন। কিন্তু চালক মেঘনাথ গোপ তখনও পিকআপ চালু করার চেষ্টা করছিলেন। ট্রেন পিকআপে ধাক্কা লাগার কয়েক সেকেন্ড আগে চালক মেঘনাথ গোপ পিকআপ থেকে লাফিয়ে পড়ে নিজেকে রক্ষা করেন। ঠিক তখনি ট্রেনের ধাক্কায় পিকআপটির একপাশ চ্যাপ্টা হয় এবং অন্তত ৩০০ গজ সামনে গিয়ে রেললাইনের পাশে সিটকে পড়ে পিকআপটি।

এই ভয়াবহ দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক উৎসুক জনতার ভিড় জমে যায়। পরে জামালপুর আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের একটি ট্রাক্টরের সাহায্যে ক্ষতিগ্রস্ত পিকআপ গাড়িটি উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ করে বলেন, বনপাড়া গোরস্থান মোড় লেভেল ক্রসিংয়ে গেটবেরিয়ার না থাকার কারণে এর আগেও বেশ কয়েকবার দুর্ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা সেখানে জরুরিভিত্তিতে গেটবেরিয়ার স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3